বিশ্ব সংবাদ

জাতিসংঘে পাকিস্তান-ভারত উত্তেজনা: রামমন্দির ও নাগরিকত্ব আইন

জাতিসংঘে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের প্লেনারি অধিবেশনে ‘ইসলামভীতি মোকাবিলায় পদক্ষেপ’ নিয়ে পাকিস্তান প্রস্তাব তুলেছে। ওই প্রস্তাবে ভোট দেয়নি ভারত। প্রস্তাব উত্থাপনের সময় পাকিস্তানের দূত মুনির আকরাম ভারতের অযোধ্যায় রামমন্দির স্থাপন ও সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রসঙ্গ টানেন। আর তাতেই চটে যান ভারতের দূত।

রামমন্দির ও নাগরিক সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে পাকিস্তানকে ‘ভাঙা রেকর্ড’ বলে মন্তব্য করেন ভারতীয় স্থায়ী প্রতিনিধি রুচিরা কম্বোজ। ইসলামাবাদকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘বিশ্ব যেখানে এগিয়ে যাচ্ছে, পাকিস্তান সেখানে স্থবির হয়ে আছে।’

রুচিরা কম্বোজ বলেন, ‘আমার দেশের সঙ্গে সম্পর্কিত বিষয়ে এই প্রতিনিধিদলের সীমিত ও বিভ্রান্তিকর দৃষ্টিভঙ্গির সাক্ষী হওয়া দুর্ভাগ্যজনক। বিশেষ করে যখন সাধারণ পরিষদ এমন একটি বিষয় বিবেচনা করছে, যা নিয়ে সব সদস্যের কাছ থেকে প্রজ্ঞা, গভীরতা এবং বৈশ্বিক দৃষ্টিভঙ্গি প্রয়োজন। সম্ভবত এই প্রতিনিধিদলের কাছে এসব বিশেষত্ব নেই।’

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে ‘ইসলামভীতি মোকাবিলায় পদক্ষেপ’ শীর্ষক প্রস্তাব গ্রহণের সময় ভারতের অবস্থান ব্যাখ্যা করে একটি বিবৃতি দেন কম্বোজ।

১১৫টি দেশ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেওয়ায় সাধারণ পরিষদে প্রস্তাবটি গৃহীত হয়। এর বিপক্ষে কোনো ভোট না পড়লেও ভারত, ব্রাজিল, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, ইউক্রেন, যুক্তরাজ্যসহ ৪৪টি দেশ ভোটদানে বিরত থাকে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও পড়ুন:

Back to top button