লাইফস্টাইল

যে ৫ উপায়ে দীর্ঘদিন টিকিয়ে রাখবেন ভালোবাসা

প্রথম দেখায় প্রেম হয়ে যেতে পারে। সব ঠিকঠাক। চলছে ভালোবাসা। হঠাৎ তাতে ছন্দপতন হতে পারে। তাই ভালোবাসা টিকিয়ে রাখা একটা চ্যালেঞ্জ। যেখানে সঙ্গীকে গুরুত্ব দেওয়ার বিকল্প নেই। কিন্তু তারপর ভুল–বোঝাবুঝির জন্য দূরত্ব সৃষ্টি হতে দেখা যায় অনেক সময়। অনেক ভালোবাসা ডালপালা মেলার আগেই হারিয়ে যায়। কাউন্সেলিং সাইকোলজি বিশেষজ্ঞ ক্যারোলিন জুইক সব সময় বলেন, আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন, আমি কি ঠিক করছি? এ রকম মনোভাব আপনার সঙ্গীকে কাছে ধরে রাখবে। সম্পর্ক গভীরতর করার বিষয়ে বিভিন্ন জনের কয়েকটি পরামর্শ আমরা মেনে চলতে পারি। এতে ভালোবাসা দীর্ঘস্থায়ী করতে সুবিধা হবে।

১. কৃত্রিম কোনো কিছুই করবেন না। আজ ওর কাছে যাবেন, তাই খুব সাজগোজ করতে হবে, সাজানো কিছু কথা বলতে হবে, তা নয়। আপনি যা, তা আপনার বন্ধুকে জানতে দিন। এ জন্য পারলারে যাওয়ার দরকার নেই। সে যদি আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে, তাহলে অতি সাধারণ পোশাক, মিষ্টি হাসি ওর কাছে অসাধারণ লাগবেই। সরলতা আপনার সঙ্গীকে আরও কাছে টেনে আনবে।

২. নিজের দুর্বলতা সম্পর্কে নিজে সচেতন থাকুন, কিন্তু খুব কাছের বন্ধু হিসেবে ওকে সবকিছু জানতে দিন। তাহলে সেও তার নিজের দুর্বলতাগুলো আপনার কাছে মেলে ধরবে। এভাবেই সম্পর্ক ঘনিষ্ঠতর হয়।

৩. সন্দেহবাতিকে পড়বেন না। আপনি যদি সব সময় আপনাদের সম্পর্ক নিয়ে কেবল দুর্ভাবনায় থাকেন, তার প্রতিফলন ঘটবে সব কাজে ও কথায়। এটা আপনার সঙ্গীকে দূরে সরিয়ে দেবে। একে অপরের প্রতি মর্যাদা প্রেমের একটি অন্যতম শর্ত। ও কি আমাকে সত্যিই ভালোবাসে—এ রকম প্রশ্ন একদম প্রশ্রয় দেবেন না। কারণ, কিছু প্রাথমিক শর্ত পূরণ না হলে তো আপনাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হতো না।

৪. মনে রাখবেন, প্রেম হলো এক অর্থে দুই স্নায়ুতন্ত্রের (নার্ভাস সিস্টেম) মধ্যে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান। জীবনে নানা ঘটনার ঘাত-প্রতিঘাত থাকে। সেই সংকটের মুহূর্তে দৃঢ়তা নিয়ে আপনার সঙ্গীর পাশে দাঁড়ান। এটা সম্পর্ক দৃঢ়তর করার এক পরীক্ষা।

৫. নিজের মতো করে আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে গড়ে তোলার চেষ্টা করবেন না। এতে প্রেমের আবেগে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। প্রত্যেক মানুষেরই থাকে নিজস্ব ব্যক্তিত্ব। নিজের আলাদা কিছু চিন্তাভাবনা। ভালো লাগার বিষয়। ব্যক্তিস্বাতন্ত্র্যের বৈচিত্র্যকে মর্যাদা দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে।
ভারসাম্যপূর্ণ রোমান্টিক জীবন গড়ে তোলা ও সম্পর্ক গভীরতর করা কঠিন কিছু নয়। নিজেকে ভালোভাবে জানুন ও প্রকাশ করুন, তাহলে সঙ্গীও বাইরে থেকে আপনার ভেতরটা দেখতে পাবে। এটা সম্পর্ক গতিশীল রাখার অন্যতম শর্ত।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও পড়ুন:

Back to top button