রেসিপি

আলু-টমেটো পানি ছাড়াই কুকারে সেদ্ধ করুন

গরম ভাতে যে কোনও কিছু সেদ্ধ খেতে অনেকেই পছন্দ করেন। তা সে আলু, গাজর, কুমড়ো, টমেটো যা কিছুই ভাতে দেওয়া হোক না কেনো তা খেতে কিন্তু খারাপ লাগে না। তবে আলু ভাতে আর আলু ভর্তার মধ্যে কিন্তু পার্থক্য রয়েছে তা কি জানেন।

দেখে নিন পানি ছাড়াই প্রেশার কুকারে এই অভিনব ভর্তা বানানোর পদ্ধতি:
আলুর টুকরো আগে পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। টমেটো ভালো করে ধুয়ে নিয়ে চার টুকরো করে কেটে নিন। টমেটোর শক্ত আঁস কেটে বাদ দিতে হবে। প্রেশার কুকারে আলু, টমেটো, কাঁচামরিচ দিয়ে পানি না দিয়ে সেদ্ধ করুন। এক চামচ সরিষার তেল ছড়িয়ে দিন। প্রেসার কুকার আটকে চুলার আঁচ কমিয়ে বসিয়ে দিন। গ্যাসের আঁচ কমিয়ে ভাপে রান্না করে নিন। ২-৩টা সিটিতেই সেদ্ধ হয়ে যাবে। ৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে এগুলো ভালোভাবে পিষে নিতে হবে।

আলু টমেটো ভালো করে মেখে নিন। এবার এরমধ্যে একটা কাঁচামরিচ ভালো করে মিহি করে গরম ভাতে খেতে পারেন। শীতের দিনে এই সেদ্ধ খাবার খেতে খুব ভালো লাগে। এতে মুখের রুচি ফিরে পাওয়া যায়। গরম ভাতে চাইলে একটু ঘি ছড়িয়ে দিতে পারেন। যদি এই মাখার মধ্যে জিরা-শুকনা মরিচ, তেল মেশান তাহলেও কিন্তু ভালো লাগবে। আলু সেদ্ধ করে জিরা-মরিচ দিয়ে মেখে খেতে খুব ভালো লাগে।

আলু-টমেটো দিয়ে এবার ভর্তা বানিয়ে খেয়ে দেখুন:
প্রেশার কুকারে আলু-টমেটো সেদ্ধ করে নেওয়ার পর কড়াইতে তেল দিতে হবে। তেলে ৫টা শুকনো মরিচ ভেজে নিন। এবার আস্ত জিরা দিয়ে আদা-রসুন কুচি ভেজে নিন। তারমধ্যে একবাটি কুচানো পেঁয়াজ দিয়ে আরেকটু ভেজে নিতে হবে। একটা বাটিতে লবণ দিয়ে মরিচ মেখে নিন। পেঁয়াজ ভাজা হয়ে গেলে তারমধ্যে সেদ্ধ করে রাখা আলু-টমেটো আর স্বাদমতো লবণ মিশিয়ে দিন। ভালো করে মিশিয়ে কষিয়ে নিন। ৩-৪ মিনিট কষিয়ে হাফ চামচ হলুদ-মরিচগুঁড়া দিন। সামান্য চাট মশলা ছড়িয়ে গুঁড়ো করা শুকনো মরিচ মেখে নিলেই তৈরি মজাদার ভর্তা।

একটি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও পড়ুন:

Back to top button