বিনোদন

তারকাদের প্রেম, বিয়ে ও ক্যারিয়ার ভাবনা!

মৌসুমী হামিদ, জোভান থেকে স্বাগতা—নতুন বছরের শুরুতে ভক্ত-অনুসারীদের বিয়ের খবর জানিয়েছেন এই তারকারা। তবে মুশকিল হয়েছে অন্যদের। ব্যাচেলর তারকাদের শুনতে হচ্ছে বহুল চর্চিত সেই প্রশ্ন, ‘বিয়েটা কবে করছেন?’ উত্তরে যদি কেউ বলেন, ‘হবে।’ তখন প্রশ্নকর্তারা আরও এক ধাপ এগিয়ে বিয়ের দিনক্ষণ চানতে চান। ব্যাচেলর তারকারা বিয়ে নিয়ে প্রশ্ন এড়াতে চাইলেও ‘বিয়ের প্রসঙ্গ’ যেন তাঁদের ছাড়ে না। তারকাদের গল্প-আড্ডায় এ নিয়ে মজার ঘটনাও ঘটছে। এ প্রসঙ্গে কথা বলেছেন জায়েদ খান, আবদুন নূর সজল, আশনা হাবিব ভাবনা, সাফা কবির, তানজিম সাইয়ারা তটিনীরা।

‘ম্যাচিউরিটি আসে নাই’
বিয়ে নিয়ে প্রায়ই ট্রলের শিকার হন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। সেগুলো তাঁরও চোখে পড়ে। কিন্তু এসব নিয়ে কে কী বললেন, তা নিয়ে ভাবেন না এই অভিনেতা। তিনি মনে করেন, দিন শেষে বিয়েটা তো তাঁকেই করতে হবে। তাঁকেই সংসার করতে হবে। তাই ট্রল দেখে আবেগের বশে ভুল সিদ্ধান্ত নিতে চান না। তিনি বলেন, ‘আমি আবেগের বশে বিয়ে করব না। সত্যি বলতে, আমার বিয়ের ম্যাচিউরিটি আসে নাই। পরিবারের কাছে আমি এখনো ছোট। তারা সবাই একই কথা বলে। এ জন্য আমি বিয়ে নিয়ে সময় নিতে চাই।’

জায়েদ জানান, তিনি ছোটবেলা থেকে আদরে বড় হয়েছেন। যে কারণে এখনো অনেক কিছুই বুঝে উঠতে পারেন না, সেখানে বিয়ে তো অনেক বড় বিষয়। তাঁর মতে, একটা মেয়ে শুধু ঘরে আনলেই হবে না। তাঁর সঙ্গে বোঝাপড়া দরকার। জায়েদ বলেন, ‘আমি বিভিন্ন সময় বলেছি, আমাকে অনেক মেয়েই বিয়ে করতে চান। বিয়ে করলেই কি সব সমাধান? আমি শিল্পী, আমার আলাদা জীবন আছে। সেখানে মানিয়ে নেওয়ার ব্যাপার আছে। এখন হুট করে বিয়ে করে খবরের শিরোনাম হতে চাই না—জায়েদ খানের বিয়ে ভেঙে গেল। ম্যাচিউরিটি এলেই বিয়ে করব।’

‘বিয়েটা সেরে ফেলব’
বিয়ে নিয়ে সহকর্মীদের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি কথা শুনতে হয় অভিনেতা আবদুন নূর সজলকে। এবার মৌসুমী হামিদের বিয়েতে গিয়ে অনেক সহকর্মী ও বন্ধু এই অভিনেতাকে মজার ছলে জিজ্ঞাসা করেছেন বিয়ের কথা, এমনটাই জানালেন সজল। বন্ধুসুলভ সহকর্মীরা জানতে চেয়েছেন, ‘মামা, বিয়ে কবে?’ সিনিয়ররা প্রশ্ন করেছেন, ‘সজল, তুমি কবে বিয়ে করছ?’ ক্রমাগত প্রশ্নবাণে জর্জরিত হয়ে বিয়ের প্রসঙ্গে আর চুপ থাকতে পারছেন না সজল। এই অভিনেতা বলেন, ‘ভাগ্যে যেদিন লেখা রয়েছে বিয়ে হবে, সময় হলে বিয়ে হবে—এমন কথা তো অনেকবারই বলেছি। আমার কাছে মনে হয়, হুট করে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত নয়। নতুন করে একটা জীবন শুরু করা সহজ নয়। এসব মিলিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছি। এই বছর হয়তো সবাইকে জানিয়ে বিয়েটা সেরে ফেলব। বাকিটা আল্লাহর ইচ্ছা।’ পাত্রী ঠিক হয়েছে কি না, জানতে চাইলে সজল বলেন, ‘আমার দীর্ঘদিনের সম্পর্ক রয়েছে। দুই পরিবার বিষয়টা কিছুটা জানে। দুই পরিবারের মাধ্যমেই আমাদের বিয়েটা হবে।’

‘আপাতত বিয়ে নয়’
অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা প্রেম করছেন, এমন কথা আগে শোনা গেছে। তবে অভিনেত্রী এবার বললেন, তিনি এখন সিনেমার সঙ্গে প্রেম করছেন। চলতি বছর সিনেমা নিয়েই এগিয়ে যেতে চান। বিয়ের কথা জিজ্ঞাসা করতেই একগাল হেসে ভাবনা পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন, প্রেমের সময় কোথায়? তাহলে তাঁর প্রেম, বিয়ে নিয়ে যে এত কথা শোনা গেল? বিয়ে প্রসঙ্গে উত্তর দিতে গিয়ে ভাবনাও হাঁটলেন ‘নিরাপদ’ পথে। তিনি বললেন, ‘ভাগ্যে যেদিন বিয়ে লেখা থাকবে, সেদিনই বিয়ে হবে। বিয়ে তো করতেই হবে। সেটা যেকোনো সময় হতে পারে। কিন্তু আপাতত নয়।’

তাহলে বিয়ে নিয়ে কোনো পরিকল্পনাই নেই, এমন প্রশ্নে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার কোনো প্রেমিক নেই। কারণ, আমি সিনেমা নিয়ে খুব ব্যস্ত। নতুন বছরে দুটো সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে চারটি সিনেমা। এখন আমি টানা সিনেমায় অভিনয় করব। সব ধরনের সিনেমাই করব। পরিবার থেকেও বিয়ে নিয়ে কিছু বলে না।’

প্রেম করার মতো কেউ নেই সাফার
ফারহান আহমেদ জোভান, সাফা কবির, তৌসিফ মাহবুব, সিয়াম আহমেদ, টয়ারা ঘনিষ্ঠ বন্ধু। কিছুদিন আগেও পাঁচজনের মধ্যে কেবল জোভান আর সাফাই অবিবাহিত ছিলেন। জোভান ও সাফাকে সবাই বলতেন, ‘কবে বিয়ে করবি?’ গত বছরও বন্ধুদের আড্ডায় জোভান কথা দিয়েছিলেন, আসছে শীতে বিয়েটা হয়ে যেতে পারে। তবে তাঁর কথায় সবাই আস্থা রেখেছেন, এমনটা ভাবার কারণ নেই। কারণ, এমন প্রতিশ্রুতি অতীতে তিনি অনেকবারই দিয়েছেন। তবে এবার যে সত্যি সত্যি সেই ‘শীত’ আসবে, কে ভেবেছিল! তবে কয়েক দিন আগে জোভান বিয়ে করায় ‘বিপদে’ সাফা। কারণ, পাঁচ বন্ধুর মধ্যে কেবল তাঁরই বিয়ে করা বাকি। এখন তাই প্রশ্ন একটাই—সাফার বিয়ে কবে?

এমন প্রশ্নে সাফা বলেন, ‘আগে আমাকে আর জোভানকে বিয়ে নিয়ে ধরত। এখন আমি একা। এখন সবাইকে বলি, তোদের সবার বাচ্চা হওয়ার পর আমার বিয়ে। তোরা সন্তানদের নিয়ে আমার বিয়ে খেতে আসিস। আর বলি, বন্ধুদের মধ্যে ব্যাচেলর থাকার দরকার আছে। তাদের বিবাহবার্ষিকীসহ নানা আনুষ্ঠানিকতায় কী পরব, কীভাবে সাজব, সেসব ভেবেই দিন কাটে। আমার বিয়ে নিয়ে ভাবি না।’

বিয়ে নিয়ে এখনো তেমন কোনো ভাবনা নেই সাফার। নেই পছন্দের পাত্রও। থাকলে নাকি বিয়ে করে ফেলতেন। তবে ব্যাচেলর জীবনটাও দারুণ কাটাচ্ছেন। বন্ধু ও বন্ধুদের স্ত্রীদের সঙ্গেও দারুণ সময় কাটে। সাফা বলেন, ‘বিয়ে তো করতেই হবে। এটা সময় হলেই হবে। মা-বাবা মাঝেমধ্যে জানতে চান, পছন্দের কেউ আছে কি না। পছন্দের কেউ থাকলে হয়তো বিয়েটা হয়ে যেত। এখন নিজের মতো করেই সময়গুলো কাটিয়ে দিচ্ছি। ভালোই আছি।’

‘আমি বিয়ে করিনি’
মাত্র এক বছরের ক্যারিয়ার। এই সময়ের মধ্যেই নাটকে অভিনয় করে আলোচনায় এসেছেন তরুণ অভিনেত্রী তানজিম সাইয়ারা তটিনী। প্রেম, বিয়ে নিয়ে কী ভাবছেন, জানতে চাইলে তটিনী বলেন, ‘আমি বিয়ে করিনি। আর এখনো বিয়ে নিয়ে ভাবছি না। পরিবারের সঙ্গে থাকি। সময় হলেই বিয়ে নিয়ে কথা বলব। আর জানিয়েই বিয়ে করব। দেখা যাক, কী হয়। এখন কাজে বেশি মনোযোগী।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও পড়ুন:

Back to top button