অপরাধএক্সক্লুসিভকক্সবাজারচট্টগ্রামবাংলাদেশময়মনসিংহ

দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে অপহরণের পর কক্সবাজারের একটি হোটেলে আটকে রেখে ধর্ষণ

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে অপহরণের পর কক্সবাজারের একটি হোটেলে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার ছয় দিন পর নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে গতকাল বুধবার রাতে থানায় মামলা করেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে এবং ২২ ধারায় জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে।স্থানীয় সূত্র জানায়, ঈশ্বরগঞ্জ পৌর শহরের ওই স্কুলছাত্রীকে পাশের কাঁকনহাটি মহল্লার মো. হুমায়ন কবির সবুজের ছেলে সামিউল হাসান অর্ণব প্রেম নিবেদন করে ব্যর্থ হয়।

ছাত্রীর বাবা জানান, এ ঘটনার পর অর্ণবের পরিবারের কাছে বিচার চাইলে তারা কর্ণপাত না করে উপরন্তু মেয়ে নষ্টা বলে মন্তব্য করে হুমকি দেয়। পরে গতকাল বুধবার থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়।ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোস্তাছিনুর রহমান বলেন, ‘মামলা হয়েছে। আমরা অভিযুক্তকে ধরতে অভিযান শুরু করেছি। আশা করি শিগগিরই তাকে আটক করতে সক্ষম হব। ‘

গত ১৩ মে ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে ঈশ্বরগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে থেকে তাকে উঠিয়ে নিয়ে যায়। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে কোথাও পায়নি। এর মধ্যে দুই দিন পর ওই ছাত্রী বাড়িতে এসে হাজির হয়।

জানা যায়, অর্ণব তাকে জোর করে উঠিয়ে নিয়ে যায় কক্সবাজারের কলাতলি নামক একটি আবাসিক হোটেলে। সেখানে একটি রুম ভাড়া নিয়ে তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়। পরে বিয়ের জন্য চাপ দিলে বাড়িতে এসে বিয়ে করবে বলে গত ১৫ মে বিকেলে তাকে পাশের গৌরীপুর উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে রেখে অর্ণব পালিয়ে যায়।

Flowers in Chaniaগুগল নিউজ-এ বাংলা ম্যাগাজিনের সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।ক্লিক করুন এখানে

বাংলা ম্যাগাজিনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Back to top button